উইলস্‌ লিটল ফ্লাওয়ার স্কুল অ্যান্ড কলেজে বার্ষিক পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠান

টিবিটি ডেস্ক
টিবিটি রিপোর্ট
প্রকাশিত: ১০ মার্চ ২০২৪ ১০:৫২ পিএম
কৃতি শিক্ষার্থীদের মাঝে পুরষ্কার ও সার্টিফিকেট তুলে দিচ্ছেন আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম

রবিবার রাজধানী ঢাকার প্রাণকেন্দ্রে অবস্থিত উইলস্‌ লিটল ফ্লাওয়ার স্কুল অ্যান্ড কলেজে অনুষ্ঠিত হয়ে গেল শিক্ষা বছরের সবচেয়ে আলোচিত ও আকর্ষণীয় ইভেন্ট বার্ষিক পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠান-২০২৪। 

এতে প্রধান অতিথি হিসেবে পুরস্কারপ্রাপ্তদের মাঝে পুরস্কার বিতরণ করেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও সংসদীয় আসন-১৮১, ঢাকা -৮ এর সংসদ সদস্য কৃষিবিদ আ.ফ.ম বাহাউদ্দিন নাছিম। 

অনুষ্ঠানের সভাপতির দায়িত্ব পালন করেন বাংলাদেশ পর্যটন করপোরেশনের চেয়ারম্যান ও এই প্রতিষ্ঠানের এডহক কমিটির সভাপতি এ.কে.এম আফতাব হোসেন প্রামানিক। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন এডহক কমিটির অভিভাবক সদস্য মোঃ মোয়াজ্জেম হোসেন। আমন্ত্রিত অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের ১৯ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর মোঃ আবুল বাশার, সনোলজিস্ট ও চিকিৎসা বিজ্ঞানী ডাঃ সুলতানা শামিমা চৌধুরী রিতা প্রমুখ।

অনুষ্ঠানে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রধানগন এবং আমন্ত্রিত অতিথিবৃন্দ এবং বিপুল সংখ্যক শিক্ষার্থীসহ অভিভাবকবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। 


প্রধান অতিথি কৃষিবিদ আ.ফ.ম বাহাউদ্দিন নাছিম তাঁর বক্তব্যের শুরুতে ৫২ এর ভাষা আন্দোলন ও ভাষা শহীদদের মহান আত্মত্যাগ ও মহান মুক্তিযুদ্ধের রক্তঝরা মার্চের উত্তাল দিনগুলোর স্মৃতিচারণ করে। এ সময় তিসি ঢাকার রেসকোর্স ময়দানে অনুষ্ঠিত ঐতিহাসিক ৭ই মার্চের স্মৃতিচারণ করেন এবং স্বাধীনতার মহান স্থপতি ও জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে শ্রদ্ধাভরে স্মরণ করেন। 

তিনি আশা করেন, মুক্তিযুদ্ধের চেতনাকে অন্তরে লালন করে একদিন এ দেশ বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা হিসেবে গড়ে উঠবে। শিক্ষার্থীদের পুঁথিগত বিদ্যার পাশাপাশি খেলাধুলায় মনোযোগী হয়ে ভবিষ্যতে সেরা ক্রীড়াবিদ হওয়ার জন্য এখন থেকে প্রস্তুতি নেয়ার আহবান জানান তিনি। 

বর্তমান সরকারের যুগোপযোগী শিক্ষা ব্যবস্থা সর্বস্তরে বাস্তবায়নের জন্য শিক্ষক, অভিভাবক তথা সংশ্লিষ্ট সকলকে একসাথে কাজ করার উপর গুরুত্ব আরোপ করেন তিনি। প্রতিষ্ঠানের ভালো ফল অর্জনে শিক্ষকদের ফলপ্রসু পাঠদানে আরো অধিক যত্নবান হওয়া এবং শিক্ষার্থীদেরকে লেখাপড়ায় আরো বেশি মনোযোগী হওয়ার অনুরোধ জানান আ.ফ.ম বাহাউদ্দিন নাছিম। 


আ.ফ.ম বাহাউদ্দিন নাছিম অতীতের সকল ভুল বুঝাবুঝির অবসান ঘটিয়ে শিক্ষক, শিক্ষার্থী অভিভাবকগণকে এক হয়ে প্রতিষ্ঠানের স্বার্থে কাজ করার আহবান জানান। তিনি আরও বলেন, শিক্ষকরা হচ্ছে সমাজের দর্পণ। শিক্ষাদানের পাশাপাশি তাদের চরিত্র গঠনে তাঁদের আরো সতর্ক থাকার আহবান জানান। কারণ শিক্ষকদের চারিত্রিক বৈশিষ্ট্য সরাসরি শিক্ষার্থীদের উপর প্রভাব বিস্তার করে। 

অনুষ্ঠানের সভাপতি এ.কে.এম আফতাব হোসেন প্রামানিক তার বক্তৃতায় প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার মানোন্নয়নে সকলকে এক হয়ে কাজ করার উপর গুরুত্বারোপ করেন এবং ২০২৪ শিক্ষাবর্ষে পাবলিক পরীক্ষার ভালো ফলাফল অর্জনে শিক্ষার্থী, শিক্ষক ও সংশ্লিষ্ট সকলকে নিরলস পরিশ্রম করার আহবান জানান। 

তিনি পুরস্কার প্রাপ্ত শিক্ষার্থীদের অভিনন্দন জানান এবং ভবিষ্যতে এ ধারা অব্যাহত রাখার আহবান জানান। ব্যস্ততার মাঝে অনুষ্ঠানে উপস্থিত হওয়ার জন্য প্রধান অতিথি, বিশেষ অতিথি ও আমন্ত্রিত অতিথিবৃন্দকে তিনি বিশেষ ধন্যবাদ জানান। তিনি আশা প্রকাশ করেন, “সুস্থ দেহে সুস্থ মন” এ বাণীকে অন্তরে লালন করে অত্র প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা পড়ালেখার পাশাপাশি ক্রীড়া, সাহিত্য ও সাংস্কৃতিক ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখবে। 

প্রতিষ্ঠানের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ আ ন ম সামসুল আলম তার শুভেচ্ছা বক্তব্যে উইলস্‌ এর অতীত ঐতিহ্যে এবং শিক্ষার্থীদের খেলাধুলাসহ বিভিন্ন পাবলিক পরীক্ষায় ধারাবাহিক ঈর্ষণীয় সাফল্যের বিভিন্ন দিক তুলে ধরেন এবং আশা প্রকাশ করেন ভবিষ্যতে ফলাফলের এ ধারা অব্যাহত থাকবে এবং একদিন এ প্রতিষ্ঠান বাংলাদেশের সেরা শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে পরিণত হবে। 


প্রধান অতিথির বক্তব্য শেষে বিভিন্ন শাখায় যথাক্রমে একাডেমিক ক্ষেত্রে ২৩৯ জন, ক্রীড়া ক্ষেত্রে ১৩৩জন, সাংস্কৃতিক ক্ষেত্রে ১৭৮ জন ও কো-কারিকুলার ক্ষেত্রে ০২ জনসহ মোট ৫৫২ জন শিক্ষার্থীর মাঝে পুরস্কার বিতরণ করা হয়। পরে প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীদের অংশগ্রহণে মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পরিবেশন করা হয়।