বিআরটিসি বাসের চাপায় নিহত ৪

টিবিটি ডেস্ক
টিবিটি ডেস্ক
প্রকাশিত: ৬ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ ০১:১৮ এএম
দিনাজপুর-রংপুর মহাসড়কের রানীরবন্দর এলাকায় দুর্ঘটনার পর বিআরটিসি বাসটি ভাঙচুর করে বিক্ষুব্ধ জনতা।

দিনাজপুর-রংপুর মহাসড়কের রানীরবন্দর এলাকায় বিআরটিসি বাসের চাপায় দুই ভ্যানচালকসহ চারজন নিহত হয়েছে। আহত হয়েছেন আরও কমপক্ষে পাঁচজন। 

মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ৭টার দিকে এই ঘটনার পর বিক্ষুব্ধ জনতা বাসটি ভাঙচুর করে এবং সড়ক অবরোধ করে রাখে। 

পরে পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনলে পৌনে ১০টায় সড়ক চলাচল স্বাভাবিক হয় বলে জানান চিরিরবন্দর থানার ওসি আবুল হাসনাত। 

দুর্ঘটনায় নিহতরা হলেন- ভ্যানচালক নজরুল ইসলাম নজু (৪৫), আব্দুল মজিদ (৪৫) এবং মধু ব্যবসায়ী লতাইয়া চাকমা (৫২) ও মাহিন্দ্রা চাকমা। 

আহত কমপক্ষে পাঁচজনকে দিনাজপুর এবং রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। তবে তাদের পরিচয় এখনো নিশ্চিত করতে পারেনি পুলিশ। 

প্রত্যক্ষদর্শীদের বরাত দিয়ে চিরিরবন্দর থানার ওসি আবুল হাসনাত জানান- সকাল সাড়ে ৭টার দিকে দিনাজপুর থেকে ছেড়ে আসা রংপুর অভিমুখী বিআরটিসির বাসটি প্রথমে পরপর দুটি ব্যাটারিচালিত ভ্যানকে ধাক্কা দেয়। 

পরে চালক বাস নিয়ে পালিয়ে যাবার চেষ্টা করলে আরও দুই পথচারীকে চাপা দেয়। ফলে এই হতাহতের ঘটনা ঘটে। 

ঘটনার পর বাসের চালক ও হেলপার পালিয়ে গেলেও জনতা বাসটি আটক করে ভাঙচুর করে। এ সময় সড়কে যান চলাচল সম্পূর্ণরূপে বন্ধ হয়ে যায়। 

খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে উত্তেজনাকর পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা করে এবং সকাল পৌনে দশটায় সড়ক চলাচল স্বাভাবিক করে। 

পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে হাইওয়ে থানা পুলিশ রেকারের মাধ্যমে বিআরটিসি বাসটি তাদের হেফাজতে নিয়ে যায়। 

নিহতদের মধ্যে দুইজনের মরদেহ এর মধ্যে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে বলেও জানান ওসি।